,

তালতলীতে ছাত্রীকে অপহরণের অভিযোগে মামলা

নিজস্ব  প্রতিনিধি, তালতলী (বরগুনা) ♦
বরগুনার তালতলীতে দাখিল পরীক্ষার্থী বিয়েতে রাজি না হওয়ায় দুই বন্ধু তাকে জোর পূর্বক অপহরণ করেছে। অপহৃতা শিক্ষার্থীকে তার অভিভাবক তিন দিন খুজে কোথাও না পেয়ে দুই বখাটেসহ ৬ জনকে আসামী করে আদালতে মামলা করেছে শিক্ষার্থীর বাবা। আদালত দুই বখাটের বিরুদ্ধে অপরাধ আমলে নিয়েছে।
এ ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার সকাল সাড়ে ১০ টায় তালতলী উপজেলার জাকিরতবক গ্রামে। আসামীরা হল একই গ্রামের রাজা মিয়ার ছেলে মো. রাজু ও জামাল খানের ছেলে মো. সোহাগ, রাজা মিয়া, জামাল খান, শিল্পী বেগম ও বাচ্চু মিয়া। বরগুনার শিশু আদালতের বিচারক ই.এম. ইসমাইল হোসেন মামলাটি গ্রহন করে তালতলী থানাকে এজাহার করার নির্দেশ দিয়েছেন।
মামলার বাদী শিক্ষার্থীর বাবা তালতলী উপজেলার জাকিরতবক গ্রামের আছমত আলীর আকনের ছেলে মোস্তফা আকন বলেন, তার মেয়ে ২০১৮ সালে অনুষ্ঠিতব্য দাখিল পরীক্ষার্থী। জাকিতবক ছালেহিয়া দাখিল মাদ্রাসা হতে জেডিসি পরীক্ষা দেবে। আসামী রাজু ও সোহাগ প্রায়ই তার মেয়েকে উত্যাক্ত করে। রাজু শিক্ষার্থীকে জোর করে বিয়ে করতে চায়। রাজু ও সোহাগের পরিবারের সদস্যদের কাছে শিক্ষার্থীর বাবা অভিযোগ দিলে ওই বখাটেরা আরো ক্ষিপ্ত হয়ে যায়।
নিত্য দিনের মত শিক্ষার্থী প্রাইভেট পড়ে আসামী রাজুর বাড়ীর সামনে দিয়ে বাড়ী আসার পথে রাজু ও সোহাগ শিক্ষার্থীর মুখে ওড়না পেটিয়ে অপহরণ করে মটর সাইকেলে তুলে নিয়ে যায়। শিক্ষার্থীর বাবা মোস্তফা আকন বিভিন্ন স্থানে খুজে কোথাও না পেয়ে মঙ্গলবার তালতলী থানায় মামলা করতে গেলে থানা র্কর্তপক্ষ মামলা না নিয়ে আদালতে মামলা করার পরামর্শ দেয়। তালতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কমলেশ চন্দ্র হাওলাদার বলেন, থানায় এ ব্যাপারে কেহ মামলা করতে আসেনি। তবে আদালতের আদেশ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেব। এ বিষয় আসামীদের মুঠো ফোন বন্ধ থাকায় তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

Print Friendly

     এই ক্যাটাগরীর আরো খবর