,

মুক্তকথা বলতেই মুক্তবুলি

লায়ন মো: শামীম সিকদার ♦
বিভাগীয় শহর বরিশাল থেকে প্রকাশিত হচ্ছে সাহিত্য সংস্কৃতি বিষয়ক মাসিক পত্রিকা মুক্তবুলি। বরিশাল সংস্কৃতি কেন্দ্রের পৃষ্ঠপোষকতায় এবং লেখক ও সাংবাদিক আযাদ আলাউদ্দীনের সম্পাদনায় এ পত্রিকা পাঠক সমাজে বেশ সমাদৃত হয়েছে। পত্রিকার প্রচ্ছদ অলংকরণ, প্রতিবেদন, ভিতরের নান্দনিক ডিজাইন ও ঝকঝকে কাগজের ছাপা হওয়ায় যে কাউকে আকৃষ্ট করবে এ পত্রিকা। আমাকেও মুগ্ধ করে মুক্তবুলি তাই প্রতিটি সংখ্যাই আমার সংগ্রহে আছে। বর্তমান সংখ্যাটিও আমি পড়েছি। একটা সাহিত্য পত্রিকা বলতে যা বুঝায় তার সব উপাদানই আছে মুক্তবুলিতে। প্রতিটি সংখ্যারই ভিন্নতা আছে। ব্যতিক্রম সব আয়োজন থাকায় এ পত্রিকা যেন পুরান হয় না। মুক্তবুলি এ পর্যন্ত ৯টি সংখ্যা নিয়মিত প্রকাশিত হয়েছে। নিয়মিতভাবে একটি সাহিত্য পত্রিকা বের করায় সম্পাদক ও প্রকাশক আযাদ আলাউদ্দীনকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। চার কালারের প্রচ্ছদসহ ২৮ পৃষ্ঠার এ পত্রিকটি ইতোমধ্যে পাঠক প্রিয়তা অর্জন করেছে। মুক্তবুলির থিম স্লোগান হল ‘পাঠক যারা লেখক তারা’। এই ব্যতিক্রমী স্লোগান থেকে অনুমান করা যাচ্ছে এ পত্রিকায় নবীন লেখকদেরই প্রধান্য দেয়া হবে। ফলে নতুন নতুন লেখক তৈরীতে অগ্রণী ভূমিকা রাখবে। নবীন লেখকরাই আগামীর সাহিত্য ভান্ডারকে চালিয়ে রাখবে। তাই তাদের লালন করার জন্য এ পত্রিকা কাজ করবে বলে আমার বিশ্বাস। এসব নবীন লেখকরাই আগামী দিনের সাহিত্য চর্চার ধারক এবং বাহকের ভূমিকায় থাকবে।
বর্ষা নিয়ে এবারের সংখ্যায় প্রবন্ধগুলো উপস্থাপিত হয়েছে খুব সুনিপুণভাবে। প্রবন্ধগুলোর মধ্যে রয়েছে. মনীষীদের সাহিত্য কর্ম নিয়ে ড. সাইয়েদ মুজতবা আহমাদ খানের বিশ্লেষনমূলক লেখা-সৈয়দ আলী আহসান: অন্যন্য এক মহামনীষী, বিশিষ্ট্য লেখক ও গবেষক আযাদ আলউদ্দীন ও মুহাম্মদ মাসুম বিল্লাহ’র সাহিত্য বিষয়ক রচনা যথাক্রমে বাংলা কবিতায় বর্ষা ও বাংলা গানে বর্ষা, সামাজিক অবক্ষয় নিয়ে মোহাম্মদ এমরান’র বিশেষ প্রবন্ধ- অসভ্যতাই যখন সভ্যতার মাপকাঠি, মানুষের আবেগ নিয়ে আমার লেখা নিবন্ধ আবেগহীন মানুষ যন্ত্রের মত, ইতিহাস ও ঐতিহ্য নিয়ে মাহমুদ ইউসুফের প্রবন্ধ-বালকি শাহ’র সংগ্রাম, টিএম জালাল উদ্দীনের স্মৃতিচারণমূলক লেখা: শের-বাংলা’র স্মৃতির উদ্দেশ্যে, তরুন ফিচার লেখক ও সোস্যাল মিডিয়া এক্টিভিস্ট আব্দুর রহমান সালেহ’র মিডিয়া বিষয়ক নিবন্ধ-পরিবেশনায় ভিন্নতা চান পাঠক ও দর্শকরা এবং তৈয়বুর রহমান আজাদ’র পরিবেশ বিষয়ক লেখা-বর্ষায় সজীব হয় প্রকৃতি, পরিবেশ রক্ষায় গাছ লাগান। এছাড়াও আছে হেলথ টিপস, কোন রোগ কি কারণে। আরও একডজন কবিতাও স্থান পেয়েছে এ সাহিত্য পত্রিকায়। যার বেশীর ভাগই লেখা হয়েছে বর্ষা নিয়ে। কবি নয়ন আহমেদ’র যে চায় পবিত্রতা কবিতাটি পাঠে আমাদের মনকে পবিত্র করবে।
এবারের সংখ্যায় প্রচ্ছদ প্রতিবেদন করা হয়েছে বাংলা কবিতায় বর্ষা। আযাদ আলাউদ্দীনের লেখা চমৎকার এ প্রচ্ছদ রচনায় বাংলা সাহিত্যে কবিতায় বর্ষা ও এর প্রভাব নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। তার এই লেখাটি পড়ে পাঠক বর্ষা ও বর্ষাকাল নিয়ে বাংলা সাহিত্যে যতসব কবিতা রচিত হয়েছে তার আদ্যপান্ত জানতে পারবেন। কবি কালিদাস তার মহাকাব্য মেঘদূত রচনা করেছেন বর্ষাকে নিয়ে। আগেকার দিনে ভারতে বর্ষাকে বিরহকাল হিসেবে গন্য করা হতো। বর্ষার আগে যদি প্রবাসী স্বামীরা যদি বাড়িতে না আসতে পারত তাহলে ৭ আট মাস কাটাতে হত বাহিরে। ঐসময় ভারতে বর্ষায় রাস্তাঘাট ডুবে যেত। মধ্যযুগের কবি মুকুন্দরাম চক্রবর্তী বর্ষা নিয়ে লিখেছেন শ্রাবণে বরিষে মেঘ দিবস রজনী/সিতাসিত দুুই পক্ষ এই না জানি। কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বর্ষাকে উপস্থাপন করেছেন ভিন্ন ভিন্ন আঙ্গিকে এবং বিদ্রোহী ও প্রেমের কবি কাজী নজরুল ইসলাম বর্ষাকে চঞ্চলা মেয়ের সাথে তুলনা করেছেন। কাশ ফুলের নরম ছোঁয়ায় সে সৌন্দর্য্য বিকশিত হয়। এমন কোন কবি পাওয়া খুবই দুরূহ ব্যাপার, যে জীবনে অন্তত দু’একটি কবিতা বর্ষা নিয়ে লেখেনি। বাংলা সাহিত্যের প্রাচীন যুগ থেকে মধ্যযুগ পার হয়ে আধুনিক যুগ পর্যন্ত বহু কবি বর্ষা নিয়ে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে কবিতা লিখেছেন। বর্ষা আমাদের মনকে প্রয়োজনের জগৎ থেকে নিয়ে যায় অনন্ত অভিসারে অন্য কোন খানে।
আধুনিক বাংলা ভাষা ও সাহিত্যের অনন্য সাধারণ এক মহা মনিষীর নাম সৈয়দ আলী আহসানকে নিয়ে স্মৃতিচারণমূলক লেখাটি পড়লে পাঠকগন তার সাহিত্যকর্ম বিষয়ে বিস্তারিত জানতে পারবেন। তথ্যবহুল এ লেখাটি মুক্তবুলির প্রথমেই স্থান দেয়া হয়েছে। সমাজিক অবক্ষয় দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। আমরা কেন যেন আত্মকেন্দ্রিক হয়ে যাচ্ছি দিন দিন। আমরা এখন আর সমাজ নিয়ে চিন্তা করি না। সব সময় নিজেকে নিয়ে ব্যস্ত থাকি। আমাদের না বলে এখন আমার বলতেই বেশী পছন্দ করি। জন্মদাতা বাবা মা কেও ভুলে যাচ্ছি নিমিষেই। বৃদ্ধ মা অথবা বাবাকে রাস্তায় ফেলে রেখে যাওয়ার ঘটনাও আমাদের সমাজে ঘটছে। এধরণের ঘটনা কাম্য নয়। এসব বিষয় নিয়ে মোহাম্মদ এমরান’র লেখাটিও ভাল লেগেছে। তিনি বর্তমান সমাজের প্রকৃত চেহারাটা তুলে ধরেছেন। আবেগহীন মানুষ যন্ত্রের মত শিরোনামে আমার লেখাটি আপনাদের কেমন লেগেছ তার বিশ্লেষণ প্রিয় পাঠকদের হাতেই থাকল।
পিরোজপুরের বাকলি শাহ’র জীবন সংগ্রাম নিয়ে লেখাটি দারুন হয়েছে। ১৭৮৭ সালে ইংরেজদের অত্যাচার থেকে কৃষকদের বাঁচাতে বালকি শাহ প্রতিরোধ বাহিনী গঠন করেন। আজীবন তিনি নিপীড়িত মানুষের পাশে থেকে সংগ্রাম চালিয়ে গেছেন। বালকি শাহ’র জীবন সংগ্রাম নিয়ে গবেষণামূলক ও ইতিহাস সমৃদ্ধ লেখাটি সকলের ভাল লাগবে। বাংলার বাঘ শের-ই-বাংলা এ কে ফজলুল হক অভিভক্ত ভারতের একজন অবিসংবাদিত নেতা ছিলেন। বরিশালের মাটিতে তার জন্ম অথচ সেই বরিশালের মানুষ তাকে ভুলে যাচ্ছে। টিএম জালাল উদ্দীন তার লেখার মাধ্যমে বরিশাল বাসীকে মনে করিয়ে দিয়েছেন। আমরা যেন তাকে শ্রদ্ধার সাথে স্মরণে রাখি। আজকাল মিডিয়ার বিপ্লব ঘটছে। দেশে প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সংখ্যা অনেক। এত মিডিয়া দরকার আছে কি নাই সেই বিতর্কে যাব না শুধু বলব মান সম্মত মিডিয়া চাই। তরুন ফিচার লেখক আবদুর রহমান সালেহ মিডিয়ার বর্তমান হালচাল নিয়ে লেখাটি দারুন হয়েছে। তিনি মিডিয়ার পরিবেশনার ভিন্নতা চান তা নাহলে পাঠক বা দর্শক বেশী দিন ধরে রাখা যাবে না। বর্তমানে গাছ লাগানোর মৌসুম চলছে তাই পরিবেশ রক্ষায় সবাইকে গাছ লাগানোর আহবান জানিয়েছেন লেখক তৈয়বুর রহমান আজাদ।

সার্বিক বিবেচনায় মুক্তবুলি সাহিত্য প্রেমিদের ক্ষুধা মিটাতে অবদান রাখবে। তবে হতাশার কথা হল এতকম বিজ্ঞাপন নিয়ে কতদিন টিকে থাকবে আমাদের হৃদয়ের মুক্তবুলি। সম্পাদক মহোদয়ের প্রতি আহবান থাকবে যখন শুরু করেছেন তখন টিকিযে রাখুন। জানি বলাটা অনেক সহজ কাজটা অনেক বেশী কঠিন। তবুও কষ্ট হলেও নিয়মিত প্রকাশ করবেন। হয়তো একদিন সফলতা আসবে। প্রচ্ছদ অলংকরণে যথেষ্ট মুন্সিয়ানা লক্ষ করা যাচ্ছে। কবিতার পাশাপাশি ছোট ছোট গল্প ছাপানো যেতে পারে। বরিশাল অঞ্চলের কবি সাহিত্যিকদের নিয়ে সচিত্র প্রতিবেদন ছাপানো যেতে পারে। আর লেখকের নামের পাশে তার ছবিটা ছাপালে পাঠকগণ লেখককে চিনতে পারবে। যেহেতু আপনার নবীন লেখকদের নিয়ে বেশী কাজ করছেন। তাই পাঠকদের সাথে লেখককে পরিচিত করিয়ে দিতে লেখকের ছবি ছাপানো যেতে পারে।
সবশেষে বলবো সাহিত্য পত্রিকা মুক্তবুলি এগিয়ে যাবে অনন্তকাল সবার আন্তরিক ভালোবাসায়। তাই বলব মুক্তবুলি পড়ুন, অন্যকে পড়তে উৎসাহিত করুন এবং আপনার মনের কথা লিখুন এবং সাহিত্য চর্চায় পৃষ্ঠপোষকতা করুন।

Print Friendly

     এই ক্যাটাগরীর আরো খবর