,

কলাপাড়া শ্যালিকার ছবি ব্যবহার করে ইমু আইডি খুলে প্রতারণার অভিযোগের দুলাভাই আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক ♦
পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় শ্যালিকার ছবি ব্যবহার ইমু আইডি খূলে মানুষের সাথে প্রতারণার অভিযোগে আপন দুলাভাই মো: সজিব সকিদারকে গ্রেফতার র্যাব।
জানাযায়, র‌্যাব-৮ পটুয়াখালী ক্যাম্পের একটি বিশেষ আভিযানিক দল কোম্পানী অধিনায়ক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ রইছ উদ্দিন এর নেতৃত্বে ৩০ ডিসেম্বর রাত আনুমানিক ১ ঘটিকার সময় পটুয়াখালী জেলার কলাপাড়া থানাধীন রজপাড়া এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে জনৈক কিশোরীর ছবি ও নাম ব্যবহার করে ভূয়া ইমু আইডি খুলে আপত্তিকর ছবি ও ভিডিও প্রচার করার অভিযোগে মোঃ সজিব সিকদার (২৩)কে আটক করে। ঘটনার বিবরণে জানা যায় যে, অভিযুক্ত মোঃ সজিব সিকদার ভিকটিমের বড় বোনের স্বামী। আত্বীয়তার সুবাদে ভিকটিমের ব্যবহৃত মোবাইল সীম দিয়ে সুকৌশলে ভিকটিমের ছবি ও নাম ব্যবহার করে ভূয়া ইমু আইডি খুলে বিভিন্ন ধরণের অশ্লীল ও আপত্তিকর ছবি ও ভিডিও প্রচার করে। এছাড়া ভিকটিমের ব্যবহৃত মোবাইল সিম নম্বরটি ইমু আইডিতে ছড়িয়ে দিয়ে বিভিন্ন ব্যক্তির নিকট কুপ্রস্তাব পাঠাতে থাকে। বিভিন্ন অপরিচিত ও অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিগন উক্ত মোবাইল নম্বরে কল দিয়ে ভিকটিমকে প্রতিনিয়ত কুপ্রস্তাব দিতে থাকলে, ভিকটিম ও তার পরিবার আইনগত সহায়তার নিমিত্তে কলাপাড়া থানায় একটি সাধারণ ডায়রী করেন (কলাপাড়া থানার জিডি নং ৯৯৮, তারিখঃ ২৬-৬-২০১৯খ্রিঃ)। এছাড়া অভিযুক্ত আসামীকে সনাক্তপূর্বক গ্রেফতারের নিমিত্তে আইনগত প্রতিকার চেয়ে র‌্যাব-৮, সিপিসি-১, পটুয়াখালী ক্যাম্প বরাবর অভিযোগ দায়ের করেন। পরে র‌্যাব-৮, সিপিসি-১, পটুয়াখালী ক্যাম্প এর একটি বিশেষ আভিযানিক দল তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় ভিকটিমের আপন দুলা ভাই অভিযুক্ত মোঃ সজিব সিকদারকে সনাক্ত করে এবং নিজ বাড়ী থেকে তাকে আটক করা হয়। এসময় অভিযুক্তের মোবাইল হতে ভিকটিমের নামে ভূয়া ইমু আইডি ও বিভিন্ন ধরণের অশ্লীল ও আপত্তিকর ছবি ও ভিডিও জব্দ করা হয়। এসংক্রান্তে ভিকটিমে মা বাদী হয়ে পটুয়াখালী জেলার কলাপাড়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। আটককৃত আসামীকে পটুয়াখালী জেলার কলাপাড়া থানায় হস্তান্তর করা হয়।

Print Friendly

     এই ক্যাটাগরীর আরো খবর