,

বরগুনায় নিরাপদ সড়ক দিবস উদযাপন

এমএস রিয়াদ, বরগুনা থেকে ♦

‘সাবধানে চালাব গাড়ি’ ‘ নিরাপদে ফিরবো বাড়ি’ এই প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে বরগুনা জেলা প্রশাসনের আয়োজনে ও বিআরটি’র সহযোগিতায় আজ সকাল ৯ টায় জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস উদ্ যাপন উপলক্ষে জেলা প্রশাসাক কার্যালয়ের সামনে থেকে একটি রেলি বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে জেলা শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে এসে শেষ করে আলোচনা সভায় মিলিত হয়। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, বরগুনা জেলা প্রশাসক আলহাজ্ব মো. মোখলেছুর রহমান। নিরাপদ সড়ক চাই সংগঠনটির সভাপতি মাহবুবুর রহমান অভির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. নুরুজ্জামান, সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার নাযমুল ইসলাম, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আলহাজ্ব মো. আ. রশিদ মিয়া, পৌর প্যানেল মেয়র রইসুল আলম রিপন, জেলা শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি শুখ রঞ্জন শীল, প্রেসক্লাব সভাপতি জাকির হোসেন মিরাজ, বরগুনা এফ এম ৯৯.২’র ষ্টেশন ম্যানেজার মনির হোসেন কামাল, বরগুনা বাস মালিক সমিতির সভাপতি গোলাম মোস্তফা কিসলু, সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন সভাপতি শাহাবুদ্দিন শাবু প্রমূখ। এই প্রথমবার পালিত জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস উদ্ যাপন উপলক্ষে প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে বলেন, বরগুনা শহরের বিভিন্ন সড়ক এখনও নাযুক। আর এই ভাঙ্গা সড়কের কারণেও ঘটছে দুর্ঘটনা। তবে তিনি অদক্ষ ড্রাইভারেকেও দায়ী করেন। এছাড়াও ড্রাইভার ও হেলপারদের ভালো ট্রেনিং না থাকা। রাস্তা, ড্রাইভার ভালো হলেও গাড়ি ভালো না থাকার জন্যও সড়ক দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। রাস্তায় চলতে গেলে চালকদের বিভিন্ন সিগনাল বুজতে হবে বলেও তিনি জানান। গাড়ি মালিকদের উদ্দেশ্যে বলেন, যেহেতু আপনার কোটি টাকার গাড়ি, দুর্ঘটনা ঘটলে আপনারই বেশি কষ্ট হবে। তাই অদক্ষ ড্রাইভার নিলে আপনারই ক্ষতি। এছাড়াও প্রত্যেকটি মানুষের রাস্তায় হাটতে গেলে,হাটার নিয়ম কানুন জানতে হবে। তিনি শিশুদের রাস্তায় চলা শিখানো সম্পর্কে বেশ গুরুত্ব দেয়। হেলপার থেকে সরাসরি কিছুদিনের মধ্যেই ড্রাইভারের দায়িত্ব পায়। অথচ তাঁর নেই কোন দক্ষতা,নেই কোন লাইসেন্স। বাস মালিক সমিতিরগুলোকে এই বিষয়ে যথেষ্ট খেয়াল রাখার অনুরোধ জানান। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. নুরুজ্জামান সকলের উদ্দেশ্যে বলেন, গাড়ি স্টাফদের সাথে যাতায়াতকালে সহানুভূতিশীল ব্যবহার করার জন্য অনুরোধ করেন। কেননা দুরপাল্লার যাতায়াতের সময় যাদের জন্য আমরা নিরাপদে পৌঁছাতে পারি যার যার গন্তব্য স্থানে। তাঁদের চাকুরি জীবনটাও তো নাযুক। তাই তাঁদের দিকেও সুন্দর দৃষ্টি দিতে হবে। এছাড়া বিশেষ অতিথিদের বক্তব্যে বক্তারা বলেন, ফিটনেস বিহিন গাড়ি বন্ধ করার জন্য ও পরিবহন চালানোকালে চালকের হাতে মোবাইল ফোনে কথা বলা বন্ধ করতে হবে। প্রশাসনের উদ্দেশ্যে দুর্ঘটনা কমাতে দরকারে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করার ও পুলিশ প্রশাসনের ট্রাফিক বিভাগকে ঘুষ নিয়ন্ত্রণ করার অনুরোধ জানান মনির হোসেন কামাল। এছাড়া সকলেই চিত্র নায়ক ইলিয়াস কাঞ্চনকে এই ধরণের সংগঠন করায় তাঁকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।
আলোচনা সভায় নিরাপদ সড়ক চাই বরগুনা জেলা শাখার সকল সদস্য,বিভিন্ন বাহনের চালক,হেল্পার সহ সামাজিক সংগঠনগুলোর নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।।


 

Print Friendly

     এই ক্যাটাগরীর আরো খবর