,

বেতাগীতে কোভিড-১৯ টিকা গ্রহণে আগ্রহ বাড়ছে

মো: শামীম সিকদার ♦
বেতাগীতে দিন দিন কোভিড-১৯ এর টিকা গ্রহনে আগ্রহ বাড়ছে। টিকাদান কক্ষে প্রচন্ড ভীড়। রয়েছে নিবন্ধনকারীদের সারিবদ্ধ লাইন। হাসপাতালে টিকা গ্রহনে জন্য বিভিন্ন পেশার নারী-পুরুষদের উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে। এরই ধারাবাহিকতায় ইতোমধ্যে ডাক্তার, নার্স, সরকারি কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি, মুক্তিযোদ্ধা, গণমাধ্যমকর্মী ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা করোনা প্রতিরোধ টিকা নিয়েছেন।
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার (২৯ জূলাই) বিকেল ৫ টা পর্যন্ত এ উপজেলায় মোট ৮ হাজার ১৭৬ জনকে টিকা প্রদান করা হয়েছে। আর ৮ হাজার ৭৫০ জন রেজিষ্ট্রেশন করেছে। এ উপজেলায় এ বছরের ৭ জানুয়ারি এ হাসপাতালের আরএমও ডা: রবীন্দ্র নাথ সরকারকে টিকা প্রদানের মাধ্যমে কোভিট-১৯ এ কর্মসূচির উদ্বোধন করা হয়। উদ্বোধনের প্রথম দিনই কোভিট-১৯ টিকা নেয়ার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রেজিষ্ট্রেশন বুথ চালু করা হয়।
এছাড়াও পৌরসভা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে আগামী ৭ থেকে ১২ আগষ্ট পর্যন্ত ছয় দিন ব্যাপি শুরু হচ্ছে গণটিকাদান কর্মসূচি। সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে টিকাদান কেন্দ্র স্থাপন করা হবে। সেখানে জাতীয় পরিচয়পত্র প্রদর্র্শণ করেই টিকা গ্রহণ করা যাবে। জাতীয় পরিচয় পত্র বা জন্মসনদ নেই এমন ব্যক্তিদের বিশেষ ব্যবস্থায় টিকা দেওয়া হবে।
বেতাগী পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ড থেকে টিকা নিতে আসা মধ্য বয়েসী গৃহবধূ অজুফা বেগম বলেন, খুব সহজে টিকা নিতে পারায় আমি ভীষন খুশ্। ভয় ও নানা আতঙ্কের কারণে এতদিনে টিকা নেইনি। এখন দেখছি যারা টিকা নিয়েছেন তাদের কোন সমস্যা হয়নি বরং অনেকেই শারীরিকভাবে নানা ধরনের উপকার পেয়েছেন। তাই আমি এখন টিকা নিয়েছি।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: তেন মং জানান, প্রাথমিক পর্যায়ে মানুষের মাঝে টিকা নেওয়ার প্রবনতা কম লক্ষ্য করা গেলেও এখন সাধারণ মানুষের মধ্য টিকা গ্রহণের আগ্রহ আমরা লক্ষ্য করছি। এখন পর্যন্ত যারা টিকা নিয়েছেন তাদের শরীরে কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া সৃষ্টি না হওয়ায় মানুষের মনোবল বৃদ্ধি পাচ্ছে। এ কারণে আগের চেয়ে দিন দিন মানুষের মাঝে আগ্রহ বাড়ছে।
গণটিকাদান কার্যক্রমের সিদ্ধান্তকে ইতিবাচক বলে মনে করে বেতাগী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র আলহাজ¦ এবিএম গোলাম কবির জানান, সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী খুব শীঘ্রই পৌরসভায় টিকাদান কেন্দ্র স্থাপন করা হবে। সেখানে গিয়ে সাধারণ মানুষসহ স্থানীয় দলীয় নেতা কর্মী সকলকে টিকা নেওয়ার জন্য তিনি আহবান জানিয়েছেন।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: তেন মং জানান, প্রাথমিক পর্যায়ে মানুষের মাঝে টিকা নেওয়ার প্রবনতা কম লক্ষ্য করা গেলেও এখন সাধারণ মানুষের মধ্য টিকা গ্রহণের আগ্রহ আমরা লক্ষ্য করছি। এখন পর্যন্ত যারা টিকা নিয়েছেন তাদের শরীরে কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া সৃষ্টি না হওয়ায় মানুষের মনোবল বৃদ্ধি পাচ্ছে। এ কারণে আগের চেয়ে দিন দিন মানুষের মাঝে আগ্রহ বাড়ছে।

Print Friendly

     এই ক্যাটাগরীর আরো খবর